http://bdjokes.com/wp-content/themes/graphene/style.css

Jun 18

৩২ টা ঘুসি

>>>জন সিনা একবার
এক
দোকানে গেছে রেসলিং

জয়ী হওয়া ঘড়ি ঠিক
করার
জন্য।।।
.
জন সিনা :
আমি আমার
এই ঘড়িটা ঠিক
করতে চাই।
কত টাকা লাগবে???
.
দোকানদার :
আপনি যা দিয়ে কিনেছেন
তার
অর্ধেক
দিলেই চলবে।।।
.
জন সিনা :
আমি ঘড়িটা ৩২
টা ঘুসি মেরে পেয়েছি।
তো কয়টা দিতে হবে???
— দোকানদার বেহুশ!!

৩২ টা ঘুসি
3.82 (76.36%) 11 votes

Jun 08

****পান্তা ভাতের মতো ভালোবাসি***

রাফি সাহেবের তিন কন্যা। তাদের প্রত্যেকেরই
ফেইসবুকে একাউন্ট আছে। ফেইসবুকে
একজনের নাম দুষ্টু পরী, একজনের নাম শয়তানি
পরী আর অপর জনের নাম শান্ত পরী!
দুষ্টু পরী এবং শয়তানি পরি দুজনেই ফেইসবুকে
সেইইইই ফেমাস….! আয়নার সামনে দাড়িয়ে
থেকে শুরু করে টয়লেটের কমোডের
সামনে পর্যন্ত, সেলফি তুলে তারা ফেবুতে আপ
দেয়! অন্যদিকে শান্ত পরী খুবই শান্ত! একটা
প্রোফাইল পিকচার, তাও ব্যাক সাইড……..
একদিন রাফি সাহেব তার তিন কন্যাকে ডাকলেন।
তাকে কে কেমন ভালোবাসে তা তিনি জানতে
চাইলেন।
প্রথম কন্যা (দুষ্টু পরী)
–আচ্ছা, তুই আমাকে কিসের মতো ভালোবাসিস?
–হেই ড্যাড, আমি তোমাকে “ইলিশ ” মাছের
মতো ভালবাসি!
(রাফি সাহেব কিছুক্ষণ ভাবলেন! বুঝলেন যে,
বাজারে ইলিশ মাছের অনেক দাম! তার মানে তার
মেয়ে তাকে অনেক ভালোবাসে, তাই তিনি
হাসলেন)
দ্বিতীয় কন্যা (শয়তানি পরী)
–তুই আমাকে কিসের মতো ভালোবাসিস?
–আব্বু, আমি তোমাকে লবণের মতো
ভালোবাসি।
(রাফি সাহেব আবার ভাবলেন! তার “রাজা ও তিন কন্যা ”
গল্পটা মাথায় আসলো…! লবণের তো অনেক
প্রয়োজন! তাই তিনি এবারও হাসলেন)
তৃতীয় কন্যা (শান্ত পরী)
–তুই আমাকে কিসের মতো ভালোবাসিস?
–আমি তোমাকে পান্তা ভাতের মতো ভালোবাসি।
–কিহহহ…..! তোর এতো বড় স্পর্ধা পান্তা ভাত?
ওয়াক ওয়াক
রাফি সাহেব তৃতীয় কন্যার উত্তর শুনে খুবই রাগান্বিত
হলেন! তাই তিনি তাকে নোয়াখালী পাঠাই
দিলেন…….
গল্পের সমাপ্তির জন্য এবার আমরা চলে যাবো
২০১৫ সালের ১৪ এপ্রিল! (পহেলা বৈশাখ)
রাফি সাহেব খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠলেন।
উঠেই তার দুই কন্যা দুষ্টু পরী এবং শয়তানি
পরীকে ঘুম থেকে জাগালেন। চারপাশে সবাই
পান্তা ইলিশ খাচ্ছে! আর পহেলাবৈশাখ উপলক্ষে তার
প্রথম কন্যা ইলিশ মাছ ভাজা এবং দ্বিতীয় কন্যা এক বাটি
লবণ আনলো!
কিন্তু কেউই পান্তা ভাতের ব্যাবস্থা করেনাই! যা ছাড়া
পহেলাবৈশাখ এর আনন্দ মাটি হয়ে যায়…!
এবং রাফি সাহেব বুঝলেন, পহেলাবৈশাখে ইলিশ এবং
লবণের চেয়েও পান্তা ভাতের প্রয়োজন
অনেক অনেক বেশি!
তার মানে তার তৃতীয় কন্য (শান্ত পরী) তাকে
সবচেয়ে বেশি ভালোবাসতো! তিনি তার ভুল
বুঝতে পেরে, শান্ত পরীকে মেসেজ দিয়ে
সরি বলার জন্য ফেইসবুকে ঢুকলেন। কিন্তু হায়….
তার তৃতীয় কন্যা তাকে ব্লক করে রেখেছেন।

****পান্তা ভাতের মতো ভালোবাসি***
3.71 (74.29%) 7 votes

Jun 08

>>>>>মাতাল জোকস<<<<<

তিন মাতাল একটা গাড়িতে উঠল ।
.
ড্রাইভার বুঝতে পারল যে তারা মাতাল,
তাই সে গাড়ির ইঞ্জিল চালু করল ও কিছুক্ষণ পর বন্ধ
করে ফেলল,
এবং মাতালদের বলল……
.
তোমরা তোমাদের গন্তব্য স্থলে পৌঁছেগেছ,
.
তিন মাতাল গাড়ি থেকে নামল,,
তারপর তারা বললো……
১ম মাতালঃ- ধন্যবাদ,,
.
২য় মাতালঃ নিন, ১০০ টাকা বকশিস,,
.
৩য় মাতাল ড্রাইভারকে একটা জোরে থাপ্পর দিল,,
.
ড্রাইভার মনে করল, যে লোকটা বোধ হয় মাতাল
ছিল
না,
সে সবকিছু বুঝতে পেরেছে ।
.
তবুও সে ৩য় মাতাল কে জিজ্ঞেস করল,
থাপ্পর মারলেন কেন?
.
৩য় মাতালঃ শালা….
এত স্পীডে কি কেউ গাড়ি চালায়……

>>>>>মাতাল জোকস<<<<<
3.91 (78.18%) 11 votes

Jun 08

******যন্ত্র *****

এক লোকের বাড়ি সার্চ করে পুলিশ জাল নোট
ছাপার মেশিন পেয়ে গেল । তাকে গ্রেফতার
করতে গেলে সে পুলিশকে বলল- আমাকে
গ্রেফতার করতে চান কেন? আমার কাছে তো
একটাও জাল টাকার নোট পাননি। পুলিশ বলল- কিন্তু
জাল নোট ছাপার যন্ত্রপাতি তো পেয়েছি ।
লোকটি বলল- তাহলে একটি মেয়েকে রেপ
করার দায়েও আমাকে গ্রেফতার করুন । পুলিশ-
আপনি কি কোন মেয়েকে রেপ করেছেন?
লোকটি- না, কিন্তু রেপ করার যন্ত্র তো আমার
কাছে আছে!

******যন্ত্র *****
3.87 (77.33%) 45 votes

Jun 07

###এক চাকরির ইন্টারভিউ চলছে….###

প্রথম প্রার্থী এক বাঙালি পরীক্ষা ঘরে
ঢুকেছে….
শিক্ষকঃ দিল্লী চলো কে ডাক দিয়েছিলেন ?
বাঙালিঃ স্যার নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বোস l
শিক্ষকঃ বাঃ বাঃ খুব ভালো, আচ্ছা একজন
দেশপ্রেমিকের নাম বলুন তো ?
বাঙালিঃ স্যার অনেকেই তো আছেন, যেমন
মহাত্মা গান্ধী l
শিক্ষকঃ বাঃ বাঃ খুব সুন্দর, আচ্ছা বলুন তো
ভারত কবে স্বাধীন হয় ?
বাঙালিঃ স্যার, ভারত ১৯৪২ সালে স্বাধীন হবো
হবো করতে করতে শেষে ১৯৪৭ সালের
১৫ই আগস্ট স্বাধীন হয় l
শিক্ষকঃ খুব সুন্দর ! আচ্ছা এবার লাস্ট
প্রশ্ন,
বলুন তো আকাশে কত গুলো তারা আছে ?
বাঙালিঃ স্যার এখনও সেটা প্রমানিত হয়নি
তবে বিজ্ঞানিদের গবেষণা চলছে l
শিক্ষকঃ এবার আপনি আসতে পারেন l
******************************
******* বাঙালি চলে যাবার সময় পরের প্রতিযোগী
এক বিহারী ছিল l কিন্ত সে বাংলা জানেনা,
তাই বাঙালিকে দরজার কাছে খুব তাড়াতাড়ি
জিজ্ঞেস করলো——ভাই তোমাকে কি কি
প্রশ্ন
ধরলো ? বাঙালিঃ ভাই প্রশ্ন আমার মনে নেই, তবে
উত্তর গুলো হল…..
1) নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস
2) অনেকেই তো আছে, যেমন মহাত্মা গান্ধী
3) ১৯৪২ সালে হবো হবো করতে করতে
শেষে ১৯৪৭ সালে ১৫ই আগস্ট
4) ঠিক এখনও জানা যায়নি, বিজ্ঞানিদের
গবেষণা চলছে
বিহারির প্রবেশ…..
শিক্ষকঃ আপনার নাম কি ?
বিহারীঃ নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস l শিক্ষকঃ (অবাক
হয়ে) আপনার বাবার নাম
কি?
বিহারীঃ অনেকেই তো আছে, যেমন মহাত্মা
গান্ধী l
শিক্ষকঃ (আরও অবাক হয়ে) আপনার কবে
জন্ম হয়েছে ? বিহারীঃ ১৯৪২ সালে হবো হবো
করতে করতে
শেষে ১৯৪৭ সালে ১৫ই আগস্ট l
শিক্ষকঃ আপনি কি পাগল হয়ে গেছেন ?
বিহারীঃ ঠিক এখনও জানা যায়নি, তবে
বিজ্ঞানীদের গবেষনা চলছে l
শিক্ষক : অজ্ঞান…..

###এক চাকরির ইন্টারভিউ চলছে….###
4.33 (86.67%) 12 votes

Older posts «

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE